খোঁজ 'দ্য' সার্চ, 'দ্য' স্পিড, 'দ্য' স্পাই , দিন- 'দ্য' ডে, নেত্রী 'দ্য' লিডার- কেন অনন্ত জলিলের বেশিরভাগ সিনেমার নামে ইংরেজিতে 'দ্য' থাকছে? এই রহস্যভেদের চেষ্টা কি করেছে কেউ?

পেশায় ব্যবসায়ী অনন্ত জলিল  ‘খোঁজ- দ্য সার্চ’ (২০১০) দিয়ে দেশের সিনেমাপ্রেমিদের কাছে মুক্তি পান নায়ক-প্রযোজক হিসাবে। বর্তমানে কাজ চলছে  দ্য স্পাই, দিন- দ্য ডে ও নেত্রী দ্য লিডার- এই তিনটি সিনেমার। এই সিনেমাগুলোর মধ্যে মিল হচ্ছে এতে আছেন অনন্ত জলিল আর আছে 'দ্য'। কিন্ত কেন? কেন প্রতিটি সিনেমায় অনন্তর সাথে ইংরেজি আর্টিকেল 'দ্য' থাকছে চলচ্চিত্রের শিরোনামে?

মুনসুন ফিল্মসের ব্যানারে একের পর এক চলচ্চিত্র নির্মাণ করে আলোচনার জন্ম দিচ্ছেন অনন্ত জলিল। পেশায় ব্যবসায়ী হলেও সিনেমা নিয়ে তার বেশ ঝোক রয়েছে। ২০১০ সালে খোঁজ দ্য সার্চ দিয়ে রূপালী পর্দায় প্রথমবারের মতো আবির্ভূত হন অনন্ত জলিল। এরপরে মুক্তি পায় হৃদয় ভাঙ্গা ঢেউ(২০১১), দ্য স্পীড (২০১২), মোস্ট ওয়েলকাম (২০১২), নিঃস্বার্থ ভালোবাসা(২০১৩), মোস্ট ওয়েলকাম ২ (২০১৪)। নির্মাণ কাজ চলছে যেসব সিনেমার: দ্য স্পাই , সৈনিক , দ্বীন দ্যা ডে, নেত্রী দ্য লিডার - এই ৪টি সিনেমার। সিনেমাগুলোর শিরোনামে ইংরেজির আধিক্য দেখে মনে প্রশ্ন জাগে, “হোয়াই সো ইংলিশ?”

দিন 'দ্য' ডে সিনেমার একটি পোস্টার

গত ৭ই ফ্রেবুয়ারী তার নির্মিতব্য দুটি সিনেমাকে কেন্দ্র করে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই ব্যাপারে তাকে প্রশ্ন করা হলে ব্যাপারটি খোলাসা করেন অসম্ভব কে সম্ভব করা অনন্ত। তিনি বলেন,

‘শুরুতে আমার চিন্তাভাবনাই ছিল, যখন মুভি করবো, ইন্টারন্যাশনাল মানের করবো। এবং সেটি বিদেশে এক্সপোর্ট করবো। আমি নিজে রফতানিকারক ব্যবসায়ী। তাই ছবিটিও রফতানি করতে চাই। আর সেটা করতে হলে বিদেশি দর্শকের সামনে আন্তর্জাতিক ভাষার একটি নাম থাকতে হবে। সেই ভাবনা থেকেই চলচ্চিত্রের নামের একাংশ ইংরেজিতে থাকে।’

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে জায়গা পেতে ইংরেজির আশ্রয়ে যেতে হবে কিনা সেটি একটি আলাপের ব্যাপার হতে পারে তবে জানা গেছে, তার নতুন ছবি ‘দিন দ্য ডে’ বিশ্বের ৮০টি দেশে মুক্তি পাবে। এমনকি এই ছবি পরিচালনা করছেন ইরানের মুর্তজা অতাশ জমজম। অনন্ত-বর্ষা অভিনীত যৌথ প্রযোজনার এই সিনেমা নিঃসন্দেহে বাংলা সিনেমার জগতে নতুন দিগন্তের সূচনা করতে পারে। 


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা