২০০৭ সাল, একটি গান আলোড়ন তুলেছিল সারা দেশের আপামর তরুণদের হৃদয়ে। ব্যস্ত ঢাকার জ্যাম পেরিয়ে, গ্রামের বাড়িতে-বারান্দায়, এফএম রেডিওর চ্যানেলে; সব জায়গাতেই এই এক গান। শ্রোতারা যেন পেলেন এক নবাগত গায়কের মন হরণ করা গান। এই এক গানেই তিনি হয়ে গেলেন শ্রোতাদের অতি প্রিয় গায়ক, তিনি 'বালাম'।

এক মুঠো রোদ্দুর হাতে এক আকাশ নীল
আজ তোমার জন্য ব্যস্ত শহরে চলছে ভালোবাসার মিছিল

এক মুঠো রোদ্দুর তো সেই বছরের সবচেয়ে জনপ্রিয় গান, নিজের নামে অ্যালবামের নাম রেখেছিলেন 'বালাম'। এর আগে ছিলেন ওয়ারফেজ ব্যান্ডে। প্রথম অ্যালবামেই বাজিমাত। হাবিব, আসিফ, বাপ্পাদের হারিয়ে প্রথমবারের মতো জিতে নেন দর্শক জরিপে মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার। বালামের সেই ক্রেজে নিজের চরিত্রেই অভিনয় করে ফেললেন চয়নিকা চৌধুরীর 'তোমার জন্য' নাটকে, এটিও জনপ্রিয়।

'কার পায়ে নূপুর বাজে' বালামের আরেকটি শ্রোতাপ্রিয় গান। এরপর একে একে বালাম ২-৩, বোন জুলির সঙ্গে স্বপ্নের পৃথিবী। জনপ্রিয় হয়েছে, তবে কেন যেন বৈচিত্র্য নেই। প্রথম অ্যালবামের সেই ক্রেজ ধীরে ধীরে কমতে লাগল। এরপর স্ত্রীর কঠিন অসুখে গান থেকে সরে আসেন। সিনেমাতেও গান করেছেন, প্রজাপতি সিনেমার 'প্রত্যাখান' গানটিও হিট, কমন জেন্ডার সিনেমায় ন্যান্সির সঙ্গে 'চাঁদ কে যেমন ঘোমটা' গান তো তুমুল প্রশংসিত। 'আমাদের ছোটসাহেব' ছবিতে প্রথম প্লেব্যাক করেছিলেন। কিছুদিন আগে আলোচনায় এসেছিলেন এলআরবি-তে আইয়ুব বাচ্চুর শূন্যস্থান পূর্ণ করতে যোগদান করেছিলেন, কিন্তু সেটি আর হচ্ছে না।

আবার প্রত্যাবর্তন ঘটুক, সেই শুভকামনায় জন্মদিনের শুভেচ্ছা রইলো। শুভ জন্মদিন বালাম!


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা