মনোনয়ন পাওয়া সিনেমাগুলোর মধ্যে প্রথমেই আছে আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ এর 'রেহানা মরিয়ম নূর।' এরপরে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী'র 'নো ল্যান্ডস ম্যান।' এই দুই সিনেমা নিয়ে যখন কড়চা চলছে, তখনই আসে চমকে যাওয়ার মতন এক সংবাদ। জানা যায়, নবাগত নির্মাতা মোহাম্মদ রাব্বী মৃধার 'পায়ের তলায় মাটি নাই' সিনেমাও মনোনয়ন পেয়েছে এই চলচ্চিত্র উৎসবে...

আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ এর 'রেহানা মরিয়ম নূর' বেশ ক'দিন আগে সদর্পে ঘুরে এলো বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র উৎসব 'কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল' থেকে। সিনেমাবিষয়ক বিশ্বের অন্যতম সম্মানজনক 'রজার এবার্ট ডট কম' ওয়েবসাইটে এই সিনেমা নিয়ে রিভিউ লিখলেন দুঁদে ফিল্ম ক্রিটিক রবার্ট ট্যালেরিকো। অনুরাগ কাশ্যপের মতন গুণী নির্মাতারা সিনেমাটি নিয়ে বিস্তর প্রশংসা করলেন। এই সিনেমা নিয়ে স্তুতিবাক্যের স্রোত স্তিমিত হয়নি, এরই মাঝখানে এলো আরেকটি সুসংবাদ। জানা গেলো, গুণী নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরীর সিনেমা 'রিকশা গার্ল' যাচ্ছে উত্তর আমেরিকার 'মিল ভ্যালি চলচ্চিত্র উৎসব' এ। এর আগে সিনেমাটি দক্ষিন আমেরিকার চলচ্চিত্র উৎসব থেকে ঘুরে এসেছে। 

রিক্সা গার্ল! 

দেশীয় সিনেমা যখন বিশ্বমঞ্চগুলোতে নিয়মিত মুখ হয়ে উঠছে, চারদিক থেকে দারুণ দারুণ সব সংবাদ ভেসে আসছে, এরই মাঝখানে পাওয়া গেলো আরেকটি মন ভালো করা সংবাদ। আগামী ৬ অক্টোবর শুরু হতে যাওয়া এশিয়ার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ 'বুসান চলচ্চিত্র উৎসব' এর ২৬তম আসরে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের সিনেমা! তাও একটি-দুটি নয়। মোট তিনটি! বলে রাখা ভালো, এরকম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের এক আসরে বাংলাদেশের তিনটি চলচ্চিত্র মনোনয়ন পাওয়ার ঘটনা ইতিহাসে এই প্রথমবার! 

মনোনয়ন পাওয়া সিনেমাগুলোর মধ্যে প্রথমেই আছে আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ এর 'রেহানা মরিয়ম নূর।' এরপরে আছে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী'র 'নো ল্যান্ডস ম্যান।' এই দুই সিনেমা নিয়ে যখন কড়চা চলছে, এরইমধ্যে একেবারে শেষে আসে সবাইকে চমকে দেয়ার মতন সংবাদটি। জানা যায়, নবাগত নির্মাতা মোহাম্মদ রাব্বী মৃধার 'পায়ের তলায় মাটি নাই' সিনেমাও মনোনয়ন পেয়েছে এ চলচ্চিত্র উৎসবে। 

বাংলাদেশের ত্রিরত্ন! 

এই উৎসবে মনোনয়ন পাওয়া তৃতীয় সিনেমাটি নিয়ে কারো বিন্দুমাত্র কোনো ধারণা ছিলো না। 'বুসান চলচ্চিত্র উৎসব' এ মনোনয়ন পাওয়ার পর থেকে সবাই সিনেমাটি নিয়ে আলোচনা শুরু করে। জানা যায়, নতুন নির্মাতা মোহাম্মদ রাব্বী মৃধা তার 'পায়ের তলায় মাটি নাই' সিনেমার জন্যে টানা নয় বছর ধরে কাজ করেছেন। বই পড়ে, সিনেমা দেখে, ছোট্ট এক টিম নিয়ে, করোনার নানামুখী ঝঞ্জাট পেরিয়ে এই সিনেমা নিয়ে এগোতে হয়েছে এই নির্মাতাকে।

উল্লেখ্য, 'পায়ের তলায় মাটি নাই' সিনেমার প্রোটাগনিস্ট হিসেবে আছেন মোস্তফা মনওয়ার, যিনি 'লাইফ ফ্রম ঢাকা', 'ঊনলৌকিক' কিংবা 'লেডিস অ্যান্ড জেন্টলমেন' এ ভিন্নস্বাদের গুরুত্বপূর্ণ সব কাজ করে এরমধ্যেই বেশ ভূয়সী সুনাম কুড়িয়েছেন! তিনি পরীক্ষিত যোদ্ধা, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। এখন এই পরীক্ষিত যোদ্ধার সাথে তরুণ নির্মাতার দ্বৈতশৈলী কীরকম তালে তাল মেলায়, তা দেখার জন্যে দর্শকের আগ্রহ যে বেশ আকাশচুম্বী থাকবে, তা বলাই বাহুল্য!

সুখবর এখানেই শেষ না। বুসান চলচ্চিত্র উৎসবের 'কিম জিসকু' পুরস্কারের জন্যে মনোনীত হয়েছে মোস্তফা ফারুকীর 'নো ল্যান্ডস ম্যান।' এশিয়ার আরো ছয়টি সিনেমার সাথে লড়বে বিশেষ এ সিনেমাটি। এদিকে সাদের 'রেহানা মরিয়ম নূর' প্রদর্শিত হবে 'আ উইন্ডো অন এশিয়ান সিনেমা' বিভাগে। এ বিভাগে এশিয়ার শ্রেষ্ঠ সিনেমাগুলোকে মনোনয়ন দেয়া হয় সবসময়!

সবকিছু দেখেশুনে অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, এবারের চলচ্চিত্র উৎসবে এই তিনটি সিনেমার মধ্যে যেকোনো একটি কোনো অ্যাওয়ার্ড জিতে নিলেও নিতে পারে! এরকম কিছু হয়ে গেলে তাতে অবাক হওয়ার মতন কিছু থাকবে না! সিনেমাগুলো নিয়ে প্রত্যাশা এবং উচ্চাশা সবার এতটাই প্রবল, কোনো সুসংবাদ না পেলে বরং মন খারাপ করতে পারেন অনেকে! 

অর্থ-নির্মান-কারিগরিজনিত প্রবল সীমাবদ্ধতার মধ্যে বসবাস এদেশের চলচ্চিত্র-কারিগরদের। তবুও সব বৈপরীত্যকে পাশ কাটিয়ে চারপাশে ক্রমশই বাড়ছে সুস্থ বিনোদনের অজস্র সব ক্ষেত্র৷ স্বল্প বাজেটের মধ্যে নির্মিত হচ্ছে দুর্দান্ত কাজ, সে কাজ আবার বিশ্বমঞ্চে নিয়মিত জায়গাও করে নিচ্ছে। বিশ্বের তুখোড় মেধাবী মানুষগুলো এই ক্ষুদ্র, দরিদ্র বদ্বীপের নির্মাণগুলো নিয়ে নিয়মিত কথাবার্তা বলছেন। জানাচ্ছেন তাদের মুগ্ধতা, ভালো লাগা। দেশীয় সিনেমা নিয়ে এহেন সম্মানজনক অভিজ্ঞতার স্বাদ আমাদের জন্যে বরাবরই ছিলো বিরল। তবে দৃশ্যপট পাল্টাচ্ছে, এবং এ পরিবর্তন বেশ স্বস্তি দিচ্ছে। করছে আশাবাদীও। দেশীয় সংস্কৃতিক্ষেত্রের পরিবর্তিত দৃশ্যপটে ক্রমশই আসছে নিত্য নতুন আঙ্গিক। যার মধ্যে সাম্প্রতিকতম, দেশীয় ত্রিরত্নের বুসান-মুকুটে সংযোজন! আমরা আশা করবো, বাংলাদেশি নির্মাণগুলো এভাবেই সমৃদ্ধ হবে, দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হবে, আলোচিত হবে। আমাদের প্রত্যাশা এটাই।  


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা