এরশাদ শিকদারের মৃত্যুর দেড়যুগ পেরিয়ে গেলেও রোমাঞ্চকর এই জীবনকে সেলুলয়েডে তুলে আনার কাজটা সরাসরি করতে পারেননি কোন নির্মাতা। তবে এবার ওয়েব সিরিজে আসছেন এরশাদ শিকদার, সিরিজের নাম বরফ কলের গল্প...

গত শতাব্দীর শেষ প্রান্তেও এরশাদ শিকদারের নাম শুনলে ভয়ে আর আতঙ্কে কেঁপে উঠতো খুলনার মানুষ। গোটা দেশেই ছড়িয়ে পড়েছিল আন্ডারওয়ার্ল্ডের এই কুখ্যাত গডফাদারের কুকীর্তি। দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে ছিল তার একচ্ছত্র আধিপত্য। রাজনৈতিক প্রভাব এবং অস্ত্রের ক্ষমতাকে ব্যবহার করে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল এই সিরিয়াল কিলার। ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলায় জন্ম নেয়া এরশাদ শিকদার রেলস্টেশনের কুলি থেকে নিজেকে পরিণত করেছিলে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী হিসেবে, আশি ও নব্বইয়ের দশকে অন্তত ষাটটি হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটিয়েছিলেন এরশাদ, সত্তরটির বেশি অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র ছিল তার কাছে।

উত্থান থেকে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম, নিজের বিকৃত মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ ঘটানো কিংবা প্রায় দেড়যুগ ধরে আন্ডারওয়ার্ল্ডে রাজত্ব করে যাওয়া থেকে শুরু করে নাটকীয় পতন- এরশাদ শিকদারের জীবনের চিত্রনাট্যটা সিনেমার চেয়ে কম রোমাঞ্চকর নয় মোটেও। ২০০৪ সালে খুলনা কারাগারে এরশাদ শিকদারের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে, কিন্ত দেড়যুগ পেরিয়ে গেলেও রোমাঞ্চকর এই জীবনকে সেলুলয়েডে তুলে আনার কাজটা সরাসরি করতে পারেননি কোন নির্মাতা। 

তবে দেরিতে হলেও, ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বিঞ্জ কাজ করছে এরশাদ শিকদারের ঘটনাবলী নিয়ে, নির্মিত হচ্ছে 'বরফ কলের গল্প' নামের ওয়েব সিরিজ। এরশাদ শিকদারের ভূমিকায় এখানে দেখা যাবে অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলনকে। সিরিজটি পরিচালনা করছেন শহীদ উন নবী। 

ওয়েব সিরিজের নামকরণের সঙ্গেও এরশাদ শিকদারের ভয়াবহতার যোগসূত্র আছে। খুলনার নদীঘাট এলাকায় এই কুখ্যাত অপরাধীর একটি বরফ কল ছিল। তার যাবতীয় অপরাধের অনেকগুলোই সংঘটিত হয়েছে এই বরফকলে। এখানে এনে মানুষকে নির্মম নির্যাতনের পর হত্যা করা হতো, তারপর লাশ গুম করে ফেলা হতো। যে হত্যাকান্ডের মামলায় এরশাদ শিকদার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন, সেই যুবলীগ নেতা খালিদ হোসেনকেও এই বরফকলে ডেকে নিয়ে হত্যা করেছিলেন এরশাদ শিকদার। সেকারণেই ওয়েব সিরিজের নাম রাখা হয়েছে বরফ কলের গল্প, এই নরপিশাচের জীবন নিয়ে গল্প বলতে গেলে এই বরফকলের কথা তো বারবার আসবেই।

চলছে বরফ কলের গল্প সিরিজের শুটিং

ওয়েব সিরিজের গল্পটি এরশাদ শিকদারের জীবনী থেকে নেয়া হলেও, এখানে সত্যিকারের নাম বা পরিচয় ব্যবহার করা হবে না। আনিসুর রহমান মিলন অভিনয় করবেন নওশাদ নামের একটি চরিত্রে। এরশাদ শিকদারের আদলে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে চরিত্রটিকে। যদিও অফিসিয়াল কোন অ্যানাউন্সমেন্ট আসেনি এ ব্যাপারে। নিজের চরিত্রটি সম্পর্কে মিলন জানিয়েছেন- 

‘বরফ কলের গল্প এরশাদ শিকদারের ঘটনাবলী অবলম্বনে নির্মিত- আমাদের পক্ষ থেকে এমন কিছু বলা হচ্ছে না। তবে সেই চরিত্রের সঙ্গে নওশাদ চরিত্রটির মিল পাওয়া যেতে পারে। একটি শহরের ছেলে নওশাদ। আন্ডারওয়ার্ল্ডে তার রাজত্ব, নোংরামির গল্প উঠে আসবে এই ওয়েব সিরিজে। আমরা অনেক কিছুই রূপক অর্থে বোঝানোর চেষ্টা করছি।’

খুলনার কয়েকটি স্পটে এখন চলছে বরফ কলের গল্প ওয়েব সিরিজটির শুটিং। কবে মুক্তি দেয়া হবে এটি, সে ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি এখনও। তবে আসছে ঈদে দর্শকদের জন্য বিঞ্জ অ্যাপে মুক্তি পেতে পারে সিরিজটি। ইতিমধ্যেই ফেসবুকে প্রকাশ পেয়েছে নওশাদ চরিত্রে অভিনয় করা মিলনের একটি ফার্স্ট লুক পোস্টার, সেখানে মিলনের চোখেমুখে ফুটে উঠেছে তীব্র ঘৃণা ও প্রতিশোধস্পৃহা। খুলনার বিখ্যাত রূপসা সেতুও জায়গা করে নিয়েছে সেই ফার্স্ট লুক পোস্টারে, একারণেই 'বরফ কলের গল্প' এরশাদ শিকদারের জীবনী অবলম্বনে নির্মাণের ধারণাটি আরও বেশি পাকাপোক্ত হয়ে উঠেছে।

বিঞ্জ এর নির্মিত '১৪ই আগস্ট' ওয়েব সিরিজটি গতবছর তুমুল সাড়া ফেলেছিল। সত্যি ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত ১৪ই আগস্ট নির্মাণ এবং অভিনয়ের কারণে প্রশংসিত হয়েছিল দারুণভাবে। এবার বরফ কলের গল্পও নির্মিত হচ্ছে সত্যি ঘটনা অবলম্বনে, এরশাদ শিকদারের মতো দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসীর গল্প অবলম্বনে নির্মিত ওয়েব সিরিজটি যে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পৌঁছে যাবে মুক্তির আগেই, তাতে কোন সন্দেহ নেই। 


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা