ইউনিভার্সাল পিকচার্সের ব্যানারে রেসিং-একশন ঘরানার এই ফিল্ম সিরিজের নবম কিস্তি 'এফ নাইন' মুক্তি পাওয়ার কথা ছিলো ২০২০ সালে। কয়েকদফায় পিছিয়ে এটি এখন নেয়া হয়েছে জুন মাসের ২৫ তারিখে। কিন্ত কেন?

রেসলিং দুনিয়ার রক-খ্যাত ডোয়াইন জনসন আর মারদাঙ্গা একশন হিরো ভ্যান ডিজেলের ফাস্ট অ্যান্ড দ্য ফিউরিয়াস এর রয়েছে দুনিয়াজোড়া শক্তিশালী ফ্যানবেইস। সেই ২০০১ সাল থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত ফাস্ট অ্যান্ড দ্য ফিউরিয়াস ফ্র্যাঞ্চাইজির আবেদন কমেনি একটুও। ইউনিভার্সাল পিকচার্সের ব্যানারে রেসিং-একশন ঘরানার এই ফিল্ম সিরিজের নবম কিস্তি “এফ নাইন” মুক্তি পাওয়ার কথা ছিলো ২০২০ সালে। কয়েকদফায় পিছিয়ে এটি এখন নেয়া হয়েছে জুন মাসের ২৫ তারিখে। কিন্ত কেন?

যুক্তরাষ্ট্রে জো বিডেনের সরকার “প্রত্যেক প্রাপ্ত বয়স্ক আমেরিকানের জন্য ভ্যাক্সিন” আর যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম ফিল্ম-মার্কেট নিউইয়র্ক সিটির থিয়েটারগুলো খুলে যাওয়ার পরও ফাস্ট অ্যান্ড দ্য ফিউরিয়াস নাইন এর রিলিজ পেছানো অনেকের কাছে আশ্চর্য্যজনক মনে হয়তে পারে। মূল কারণ কি? ২০০ মিলিওন ডলারের “এফ নাইন” এর টিকিট বিক্রি করার মতো পরিবেশ এখনো তৈরি হয়নি বলে মনে করছে এই চলচ্চিত্রের সংশ্লিষ্ট ব্যাক্তিরা। বর্তমান পরিবেশে থিয়েটার পুরোদমে চালু হয়নি। সীমিত পরিসরে চালু হওয়া থিয়েটার আর করোনা-পরবর্তী ফিল্ম বাজার কেমন হবে সেই অনিশ্চয়তা- দুটো কারণে পেছাচ্ছে “এফ নাইন”। 

জেনে রাখা ভালো, “এফ নাইন” রিলিজ হওয়ার কথা ছিলো গত বছর। এরপর মহামারীর জন্য রিলিজ ডেট পেছানো হয় এই বছরের এপ্রিলের ২ তারিখে। সেখান থেকে আরেক দফায় পিছিয়ে মুক্তির তারিখ করা হয় মে মাসের ২৮ তারিখ। সর্বশেষ জানা তথ্য মতে, ফিল্মটি মুক্তি পাচ্ছে জুন মাসের ২৫ তারিখে। 

স্ট্রিট রেসিং, স্পাইয়িং আর অরগানাইজড ক্রাইমের জন্য দুনিয়াজোড়া পরিচিত ফাস্ট অ্যান্ড দ্য ফিউরিয়াস ফিল্ম ফ্র্যাঞ্জাইজি। ইউনিভার্সাল পিকচার্সের ব্যানারে এই সিরিজের প্রথম সিনেমা “দ্য ফাস্ট অ্যান্ড দ্য ফিউরিয়াস” মুক্তি পায় ২০০১ সালে, এরপর একে একে মুক্তি পায় এর ৭টি ফিল্ম যেগুলোকে একসাথে বলা হয় “দ্য ফাস্ট সাগা”। এছাড়াও এই ফ্র্যাঞ্চাইজির রয়েছে স্পিন-অফ আর টিভি সিরিজ। সর্বশেষ নয় নম্বর ফিল্ম “এফ নাইন” এর জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে সবাই।


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা