দেশের নবীন নির্মাতা আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ পরিচালিত ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমাটি ঠাঁই পেয়েছে কান চলচ্চিত্র উৎসবের অফিসিয়াল সিলেকশনে। ‘আঁ সার্তে রিগার’ বিভাগে সিনেমাটি লড়াই করবে। বাংলাদেশী চলচ্চিত্রের জন্য এমন মাহেন্দ্রক্ষণ গত দেড় যুগেও আসেনি...

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রির জন্য এরকম মাহেন্দ্রক্ষণ এসেছিলো প্রায় ১৯ বছর আগে ২০০২ সালে। সেবার তারেক মাসুদ পরিচালিত ‘মাটির ময়না’ সিনেমাটি ডিরেক্টরস ফোর্টনাইট বিভাগের জন্য নির্বাচিত হয়েছিলো বিখ্যাত কান চলচ্চিত্র উৎসবে। এবার এই ২০২১ সালে সেই কান চলচ্চিত্র উৎসবে আমাদের দেশের নবীন কিন্তু দক্ষ নির্মাতা আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ পরিচালিত ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ স্থান পেয়েছে কান চলচ্চিত্র উৎসবের অফিসিয়াল সিলেকশনে। ‘আঁ সার্তে রিগার’ বিভাগে সিনেমাটি লড়াই করবে।  ‘আঁ সার্তে রিগার’ বা ‘আন সেরেন্ট রেগার্ড’ এর অর্থ ‘ভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে’। এই বিভাগে অপ্রথাগত শৈলী ও গল্পকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। তরুণ মেধাবীদের উৎসাহিত করা হয় এ বিভাগে। 

আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের প্রথম সিনেমা ‘লাইভ ফ্রম ঢাকা’। ২০১৬ সালে ‘লাইভ ফ্রম ঢাকা’ দিয়ে তিনি প্রথমে বিদেশে আলোচিত হন যদিও সিনেমাটি বাংলাদেশে ২০১৯ সালে মাত্র একটি হলে মুক্তি পায়। অনেকেই হয়তো এই গুনী নির্মাতাকে চেনেন না তবে দেশীয় সিনেমা নিয়ে যারা টুকটাক খোজ খবর রাখেন তাদের কাছে আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ পরিচিত। তার গল্প বলার ধরন, নির্মানের মুন্সিয়ানা দিয়ে মাত্র এক সিনেমাতেই প্রমান করেছিলেন তিনি স্রোতের বিপরীতে হাটার জন্যই এসেছেন। 

গত প্রায় দুবছর ধরেই এই গুনী এবং প্রচার বিমুখ নির্মাতা প্রায় গোপনেই তার দ্বিতীয় সিনেমা ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ এর শ্যুটিং এবং পোষ্ট প্রোডাকশনের কাজ সম্পন্ন করেছেন। জানা গেছে প্রাইভেট মেডিকেল কলেজের একজন শিক্ষক রেহানা মরিয়ম নূরকে কেন্দ্র করেই এই সিনেমার গল্প। রেহানা একজন মা, মেয়ে, বোন ও শিক্ষক হিসেবে কিছুটা জটিল জীবনযাপন করেন।

নির্মাতা আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ

এরইমধ্যে এক সন্ধ্যায় কলেজ থেকে বেরোনোর সময় রেহানা একটি অপ্রত্যাশিত ঘটনার সাক্ষী হয়ে যান। এরপর থেকে সে এক ছাত্রীর পক্ষ হয়ে সহকর্মী এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে ঘটনার প্রতিবাদ করতে শুরু করেন এবং ক্রমশ একরোখা হয়ে ওঠেন। কিন্তু একই সময়ে তার ৬ বছর বয়সী মেয়ের বিরুদ্ধে স্কুল থেকে রূঢ় আচরণের অভিযোগ করা হয়। এমন অবস্থায় অনড় রেহানা তথাকথিত নিয়মের বাইরে থেকে সেই ছাত্রী ও তার সন্তানের জন্য ন্যয় বিচারের খোঁজ করতে থাকেন। আর এই অনবদ্য রেহানা চরিত্রে অভিনয় করেছেন আজমেরী হক বাঁধন। 

পোটোকল ও মেট্রো ভিডিও’র ব্যানারে সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন সিঙ্গাপুরের প্রযোজক জেরেমী চুয়া, নির্বাহী প্রযোজক এহসানুল হক বাবু এবং সহ-প্রযোজনা করেছেন রাজীব মহাজন, আদনান হাবিব, সাঈদুল হক খন্দকার। সিনেমাটির সিনেমাটোগ্রাফার হিসেবে আছেন তুহিন তমিজুল, প্রোডাকশন ডিজাইনার আলী আফজাল উজ্জ্বল ও সাউন্ড ডিজাইনার শৈব তালুকদার। সিনেমাটি সহ-প্রযোজনা করেছে সেন্সমেকারস প্রডাকশন। ব্যতিক্রমী গল্প এবং নির্মানের এই সিনেমায় আরো অভিনয় করেছেন সাবেরী আলম, আফিয়া জাহিন জাইমা, ইয়াছির আল হক, কাজী সামি হাসান, আফিয়া তাবাসসুম বর্ণ সহ আরো অনেকে। 

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের ইউজিসি নর্ম্যান্ডি প্রেক্ষাগৃহে বৃহস্পতিবার (৩ জুন) বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায় কান উৎসবের ৭৪তম আসরে নির্বাচিত সিনেমার তালিকা ঘোষণা করা হয়। এ আয়োজনে ছিলেন উৎসবের জেনারেল ডেলিগেট থিয়েরি ফ্রেমো ও সভাপতি পিয়েরে লেসকিউর। সংবাদ সম্মেলনটি সরাসরি দেখানো হয় কানের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল ও ফেসবুক পেজে।

এই খুশির এবং গর্বের খবরটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করার মাধ্যমে নির্মাতা আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ এবং পুরো টিমকে অভিনন্দন জানিয়েছেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী, নুরুল আলম আতিক, অমিতাভ রেজা চৌধুরী, আশফাক নিপুন সহ আরো অনেকে। উল্লেখ্য এবার বসছে কানের ৭৪তম আসর। আগামী ৬ জুলাই শুরু হয়ে এই আসরের পর্দা নামবে ১৭ জুলাই। শুভকামনা রইলো ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ এর পুরো টিমের জন্য।


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা