'শাটিকাপ' রাজশাহীর স্থানীয় ভাষা। অর্থ- ঘাপটি মেরে বসে থাকা। চরকির এই 'শতভাগ লোকাল ওয়েব সিরিজ'এরও পটভূমি রাজশাহী। কুশীলবও রাজশাহীর আনকোরা মানুষজন। ভাষাও রাজশাহীর। এর আগে বাংলাদেশের কোনো ওয়েব সিরিজে নির্দিষ্ট কোনো এলাকাকে এভাবে প্রোটাগনিস্ট রেখে গল্প বানাতে দেখেছি? না, মনে পড়ে না৷ 

সীমান্ত-ঘেঁষা পঞ্চগড়-রাজশাহীর স্থানীয় অপরাধপ্রবণ সমীকরণের আদ্যোপান্ত। খিস্তি-মাদক-অস্ত্রের ঝনঝনানি। নেশাদ্রব্য আর চোরাচালানের নানামুখী চলক। অস্ত্র। ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া। এসব নিয়েই শাটিকাপ। 'শাটিকাপ' রাজশাহীর স্থানীয় ভাষা। অর্থ- ঘাপটি মেরে বসে থাকা। চরকির এই 'শতভাগ লোকাল ওয়েব সিরিজ'এরও পটভূমি রাজশাহী। কুশীলবও রাজশাহীর আনকোরা মানুষজন। ভাষাও রাজশাহীর। এর আগে বাংলাদেশের কোনো ওয়েব সিরিজে নির্দিষ্ট কোনো এলাকাকে এভাবে প্রোটাগনিস্ট রেখে গল্প বানাতে দেখেছি? না, মনে পড়ে না৷ 

মাদকের সংঘবদ্ধ চক্রের হাপিত্যেশ নিয়ে অজস্র নির্মাণই হয় নিয়মিত। স্ট্রিমিং সাইট 'চরকি'তে আসা ওয়েব সিরিজ 'শাটিকাপ' হয়তো বিষয়ের দিক থেকে তাই অভিনব না, কিন্তু বড় কোনো তারকার সমাবেশ না ঘটিয়েও বিশেষ এক অঞ্চলের মানুষজন মিলে বিশেষ এক ভাষায় একটা গল্প বলে যাওয়া...চমৎকারিত্ব সেখানেই। মনে পড়লো নেটফ্লিক্সের খুবই জনপ্রিয় ওয়েব সিরিজ 'জামতারা'র কথাও। ঝাড়খণ্ডের এক প্রত্যন্ত গ্রাম 'জামতারা'র কিছু অপোগণ্ড যুবকের সংঘবদ্ধ চক্র যেভাবে অভিনব কায়দায় মোবাইল-স্ক্যামের মাধ্যমের মানুষের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিলো, সে গল্প বেশ দারুণভাবেই পর্দায় এনেছিলেন সৌমেন্দ্র পাধি। 'জামতারা'র মতন দুর্দান্ত হবে কি না শাটিকাপ, তা সময়ের হাতেই ন্যস্ত। তবে ছোট গণ্ডির বড়সড় অপরাধ-চক্রের সুলুকসন্ধান...এই বিবেচনায় খানিকটা যেন সামঞ্জস্যই পাওয়া গেলো দুই নির্মাণের মধ্যে। 

ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার সমীকরণ!  

পাশাপাশি আরেকটা বিষয়েও থাকবে তুমুল আগ্রহ। সত্যজিৎ রায় বলতেন- 

সিদ্ধহস্ত অভিনেতাকে দিয়ে অভিনয় যে কেউ করাতে পারে, আনকোরা মানুষদের দিয়ে ঠিকঠাক অভিনয় করানোই একজন নির্মাতার সবচেয়ে বড় মুন্সিয়ানা।

যে কাজটি সত্যজিৎ রায় 'পথের পাঁচালী'তে বেশ দুর্দান্তভাবেই করেছিলেন। যদি 'শাটিকাপ' এর দিকে তাকাই, এই নির্মাণের ট্রেলারে যেসব কুশীলবকে দেখলাম সর্বাগ্রে, তাদের কাউকেই খুব একটা চেনা গেলোনা। তারা যে অভিনয়ের মূলস্রোতের সাথে যুক্ত নন, সেটাও মোটামুটি নিশ্চিত। এরকম আনকোরা মানুষজন কিভাবে ক্রমশ সামনের দিকে টেনে নিয়ে যাবে গল্পের ময়দানবকে, নির্মাতা মোহাম্মদ তাওকীর ইসলাম 'পথের পাঁচালি'কে আদর্শ মেনে সবার থেকে ঠিকঠাক অভিনয় বের করে আনতে পারবেন কি না.. সেসবদিকে তাই বিশেষ নজরই থাকবে। এবং এই নবীন কুশীলবদের মধ্যে এক-দু'জন অসাধারণ অভিনয়ের সৌকর্যে অভিনয়ের মূলধারায় আলগোছে ঢুকে পড়তে পারবেন কী না, সেদিকেও থাকবে বিস্তর আগ্রহ, অখণ্ড মনোযোগ। 

নির্মাণের দুর্দান্ত সিনেম্যাটোগ্রাফী! 

নার্কো থ্রিলার 'শাটিকাপ' এর মাধ্যমে যেভাবে লোকাল ওয়েব সিরিজের গণ্ডিতে প্রবেশ করলো বাংলাদেশের সংস্কৃতিক্ষেত্র, এরকম এক্সপেরিমেন্ট পরবর্তীতে আরো বাড়বে বলেই বিশ্বাস। প্রত্যাশা থাকবে, বিষয়বস্তুর ক্ষেত্রে যেমন চমক, গল্পের ক্ষেত্রেও তেমনই থাকবে বিস্ময়। যদি গল্প আর নির্মাণের মিশেল খোলতাই হয়, তাহলে লোকাল কন্টেন্টের আলাদা এক বেঞ্চমার্ক হিসেবেই যে স্বীকৃত হবে 'শাটিকাপ', তাতে কোনো সন্দেহই নেই। সে প্রত্যাশাতেই রইলো নিরন্তর শুভকামনা৷ 


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা