একজন বলিউড অভিনেতা একই সাথে এস্ট্রোফিজিক্স নিয়ে পোস্ট করছেন, আবার বিটোভেন-মোৎজার্ট নিয়েও পোস্ট করছেন। কাফকা, নিৎসে, জ্য পল সাত্রে নিয়েও একটা ছেলে পোস্ট করছেন, মঙ্গল গ্রহে জায়গা কিনছেন, মহাকাশ নিয়ে তার অফুরান আগ্রহ- অথচ যার উত্থান কিনা বালাজির টিভি সিরিয়ালের মাধ্যমে!

যার মৃত্যু এক অর্থে পুরো একটি ইন্ডাস্ট্রিকে মোটা দাগে দুই ভাগে এবং পরবর্তীতে আরও বিভিন্ন ভাগে বিভক্ত করেছিল, আজ সেই ছেলেটার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী। নাম তার সুশান্ত সিং রাজপুত। 

সুশান্ত সিং রাজপুত কতটা অসাধারণ অভিনেতা ছিলেন, আসলেই অসাধারণ ছিলেন কিনা বা নিজেকে অসাধারণ প্রমাণ করতে পেরেছিলেন কিনা- সেটা প্রমাণ করা এই লেখার উদ্দেশ্য নয়। বরং এই লেখায় বলার চেষ্টা করব- নিজের সমসাময়িক অভিনেতাদের থেকে, এমনকি বলিউডের অন্যান্য অভিনেতাদের থেকে তিনি কোথায় খানিকটা আলাদা ছিলেন। 

আলাদা না হলে কি ন্যাশনাল অলিম্পিয়াডে চ্যাম্পিয়ন হওয়া আর ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে মেধাতালিকায় থাকা কোন ছাত্র সেকেন্ড ইয়ারে পড়াশোনা ছেড়ে দেয় নিজের প্যাশনের জন্য? শামক দাবরের নাচের গ্রুপে যোগ দিলেন, সেখান থেকে টিভিতে অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ হয়ে ওঠা আর এরপরে সিনেমা। 

২০০৬ সালে মুক্তি পাওয়া ধুম ২ এর টাইটেল ট্র‍্যাকে ঋতিক রোশনের পেছনে নেচেছিলেন সুশান্ত, ইউটিউবে গানটি পজ করে ভাল করে খেয়াল করলে তাকে খুঁজে পাবেন। সেই সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন ঐশ্বরিয়া রায়। 

মজার ব্যাপার হচ্ছে ঐশ্বরিয়ার সাথেও একই বছর চমৎকার একটা অভিজ্ঞতা হয়েছিল তার নাচের ব্যাপারেই। সেই বছর কমনওয়েলথ গেমসে ঐশ্বরিয়ার ব্যাকগ্রাউন্ড ড্যান্সার হিসেবে নেচেছিলেন সুশান্ত। নাচের এক পর্যায়ে ঐশ্বরিয়া কোলে করে উপরে উঠানোর কথা ছিল সুশান্তের, উঠানোর কাজটা তিনি ঠিকঠাকই করেছিলেন। তবে সাবেক বিশ্বসুন্দরীর রূপ দেখেই হয়ত তাকে কোল থেকে নামাতে ভুলে গিয়েছিলেন। ঐশ্বরিয়াও অবাক হয়ে ভাবছিলেন- এই ছেলে আমাকে নিচে নামাচ্ছে না কেন?

সুশান্ত সিং রাজপুত

মধ্যবিত্ত ঘরের এক ছেলে যে হয়ত কখনো ভাবেনি সে রুপালি পর্দায় কাজ করবে, সে যখন সাবেক বিশ্বসুন্দরীকে চোখের এত সামনে দেখতে পায়, তখন তার এই ধরনের আচরণ হয়ত খুব একটা বিস্ময় জাগায় না! 

কাই পো চে সিনেমার জন্য ১২ বার অডিশন দিয়েছিলেন সুশান্ত বিভিন্ন মেয়াদে। সিনেমা সফল হলে বেশিরভাগ অভিনেতা গাড়ি, বাড়ি কিনে ফেলেন সবার আগে- সেটা দোষের কিছু না। সুশান্তও তাই করেছিলেন। তবে সাথে তিনি কিনেছিলেন Alex 600 এর একটি টেলিস্কোপ, শনিগ্রহের বলয় দেখার জন্য। যে বলয় চোখের সামনে দেখলে যেকোনো আদম সন্তানের বুকে প্রলয় জেগে উঠতে পারে। শুধু তাই না, বলিউডের একমাত্র অভিনেতা হিসেবে চাঁদে জমিও কিনেছিলেন সুশান্ত। দূর মহাকাশ আর ফিজিক্সের প্রতি একজন মেইনস্ট্রিম বলিউড অভিনেতার এরকম আগ্রহ বিস্ময়কর! 

১০০ কোটির রেসে নিজেকে কখনো আটকে ফেলেননি সুশান্ত, যদিও তার ছিঁচোড়ে আর ধোনি- দুটো সিনেমাই ১০০ কোটির ক্লাবে ঢুকেছিল। ধোনির হেলিকপ্টার শটকে এতটা চমৎকারভাবে সুশান্ত আয়ত্ত্ব করতে পারবে, সেটা হয়ত স্বয়ং ধোনিও ভাবেননি। মজার ছলে একবার ধোনি অভিযোগ করেছিলেন- সুশান্ত ছেলেটা মাত্রাতিরিক্ত কিউরিয়াস! এই সিনেমার জন্য এত এত প্রশ্ন সে আমাকে করেছে, উফ! 

লেখিকা কনিকা ধিলন একবার বলেছিলেন- কেদারনাথের স্ক্রিপ্ট আমি লিখেছিলাম ১০০ পেজের মত। নিজের এনালাইসিস আর প্রতিটা লাইনে নিজের ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ দিয়ে সুশান্ত সেই ১০০ পেজের স্ক্রিপ্টকে ৩০০ পেজের উপন্যাস বানিয়েছিল। 

চুপচাপ কাজ করায় বিশ্বাসী ছিলেন সুশান্ত। নাগাল্যান্ডের পিএম টুইটারে ছবি দেয়ার আগ পর্যন্ত বলিউডের কেউ জানতো না যে, নাগাল্যান্ডের বন্যার সময় সুশান্ত বেশ ভাল অংকের একটা অর্থ দান করেছিলেন। পিকে সিনেমার জন্য রাজকুমার হিরানি যখন তাকে ডাকলেন, সেই ডাকের জন্যই ধন্য ছিলেন সুশান্ত। এই সিনেমার জন্য ২০ রুপি নিয়েছিলেন তিনি, আর সেই রুপির নোটটা নিজের বাসায় ফ্রেমবন্দী করে রেখেছিলেন। 

সুশান্তের টুইটারের পোস্টগুলো দেখলে সবচেয়ে অবাক হতে হয়। একজন বলিউড এক্টর একই সাথে এস্ট্রোফিজিক্স নিয়ে পোস্ট করছেন, আবার বিটোভেন-মোৎজার্ট নিয়েও পোস্ট করছেন। কাফকা, নিৎসে, জ্য পল সাত্রে নিয়েও একটা ছেলে পোস্ট করছেন- যার উত্থান কিনা বালাজির টিভি সিরিয়ালের মাধ্যমে! তিনি একই সাথে গিটার শিখছিলেন, আবার নিজে নিজে পাইথন নামক কোডিংও শিখছিলেন। এমন না যে এগুলো শো অফ ছিল বা নিজের ইমেজ বিল্ডাপ, সুশান্ত আসলেই এমন ছিলেন। পরস্পর প্রায় বিপরীতধর্মী বৈশিষ্টের সবকিছু নিয়ে এমন পদচারণা করা মানুষ আর দ্বিতীয়টা কই? 

দ্বিতীয়টা নেই দেখেই হয়ত খুব দ্রুত প্রস্থান হল তার। 

"এ পৃথিবী একবার পায় যারে, পায় নাকো আর!" 

সুশান্তকে নিয়ে কেম্ব্রিজ প্রফেসরের টুইট

(ছবিতে একজন কেম্ব্রিজ ভার্সিটির পিএইচডি করা প্রফেসরের টুইট দেখা যাচ্ছে, যিনি ফিজিক্সের উপরে সুশান্তের পড়াশোনা দেখে কল্পনাও করতে পারেন নি- সুশান্ত একজন বলিউড এক্টর)


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা